এ্যাপস সমুহ

Picture

বরগুনা

১৯৬৯ সালে বরগুনা পটুয়াখালী জেলার অধীনে একটি মহকুমা হয় । ১৯৮৪ সালে দেশের প্রায় সকল মহকুমাকে জেলায় উন্নীত করা হলে বরগুনা জেলায় পরিণত হয়।উত্তরাঞ্চলের কাঠ ব্যবসায়ীরা এতদ্ঞ্চলে কাঠ নিতে এসে খরস্রোতা খাকদোন নদী অতিক্রম করতে গিয়ে অনুকুল প্রবাহ বা বড় গোনের জন্য এখানে অপেক্ষা করত বলে এ স্থানের নাম বড় গোনা। কারো মতে আবার স্রোতের বিপরীতে গুন(দড়ি) টেনে নৌকা অতিক্রম করতে হতো বলে এ স্থানের নাম বরগুনা । কেউ কেউ বলেন , বরগুনা নামক কোন প্রতাপশালী রাখাইন অধিবাসীর নামানুসারে বরগুনা ।আবার কারো মতে বরগুনা নামক কোন এক বাওয়ালীর নামানুসারে এ স্থানের নামকরণ করা হয় বরগুনা ।

বরগুনা  জেলার আয়তন ১৮৩১.৩১ বর্গ কিমি। এবং সীমানা  উত্তরে ঝালকাঠি, বরিশাল, পিরোজপুর ও পটুয়াখালী জেলা, দক্ষিণে পটুয়াখালী জেলা ও বঙ্গোপসাগর, পূর্বে পটুয়াখালী জেলা, পশ্চিমে পিরোজপুর ও বাগেরহাট জেলা।মোট জনসংখ্যা ৮৪৮৫৫৪; পুরুষ ৪৩০৪২২, মহিলা ৪১৮২৩২।

বরগুনা জেলা পুলিশের অধীনে ০৬টি থানা বিদ্যমান। বরগুনা সদর থানা, বেতাগী থানা, আমতলী থানা, তালতলী থানা, পাথরঘাটা থানা ও বামনা থানা।০২টি তদন্ত কেন্দ্র রয়েছে। সদর থানার আওতাধীন বাবুগঞ্জ বাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র ও চান্দুখালী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র। ০৩টি পুলিশ ফাঁড়ি রয়েছে। এগুলো হলো-টাউন পুলিশ ফাঁড়ি, রানীপুর ব্রীজেরহাট পুলিশ ফাঁড়ি ও গাজীপুর পুলিশ ফাঁড়ি।

কীর্তিমান ও বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বের মধ্যে রয়েছেন অধ্যাপক সৈয়দ ফজলুল হক জনাব সেলিনা হোসেন শাহজাদা আবদুল মালেক খান।

বরগুনা  জেলার দর্শনীয় স্থান  বিবিচিনি শাহী মসজিদ (বেতাগী), বৌদ্ধ মন্দির (তালতলী) ও বৌদ্ধ একাডেমি।

বরগুনা জেলা পুলিশ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

 
Copyright © 2022 RANGE DIG OFFICE, BARISHAL. Developed by Momtaj Trading(Pvt.) Ltd.