এ্যাপস সমুহ

Picture

বরিশাল

ধান-নদী-খাল এই তিনে বরিশাল। দক্ষিন পূর্ব বাংলায় মুসলিম আধিপত্য বিস্তারকালে  রাজা দনুজ মর্দন কর্তৃক চন্দ্রদ্বীপ নামে এ স্বাধীন রাজ্যটি প্রতিষ্ঠিত হয়। চতুর্দশ শতাব্দি পর্যন্ত এ অঞ্চল চন্দ্রদ্বীপ নামে প্রসিদ্ধি লাভ করে। এ রাজ্য প্রতিষ্ঠার পূর্বে এ অঞ্চল বাকলা নামে পরিচিত ছিল। ১৭৯৬ খ্রিঃ পর্যন্ত এ জেলা বাকল চন্দ্রদ্বীপ নামে পরিচিত ছিল। ১৭৯৭ খ্রিঃ ঢাকা জেলার দক্ষিণাঞ্চল নিয়ে বাকেরগঞ্জ জেলা প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৮০১ সালে জেলার সদর দপ্তর বাকেরগঞ্জ জেলাকে বরিশালে স্থানান্তরিত করা হয়।

বরিশাল জেলার আয়তন ২,৭৯১ বর্গ কিলোমিটার। বরিশাল জেলার উত্তরে চাঁদপুর, মাদারীপুর ও শরিয়তপুর; দক্ষিণে ঝালকাঠি,বরগুনা ও পটুয়াখালী; পূর্বে লক্ষ্মীপুর ও মেঘনা নদী এবং পশ্চিমে পিরোজপুর,ঝালকাঠি ও গোপালগঞ্জ জেলা অবস্থিত। বরিশাল জেলায় জনসংখ্যা ২,৩২৪ মিলিয়ন।

বরিশাল জেলায় ১০টি থানা যেমনঃ বাকেরগঞ্জ, বাবুগঞ্জ, আগৈলঝাড়া, উজিরপুর, হিজলা, মেহেন্দীগঞ্জ, মুলাদি, বানারীপাড়া, গৌরনদী এবং কাজিরহাট। ০৪টি তদন্তকেন্দ্র যেমনঃ শর্শী, শরিকল, আগরপুর ও লবনসাড়া। ০২টি পুলিশ ফাঁড়ী যেমনঃ বোয়ালিয়া এবং শেওড়া সৈয়দখালী হরিনাথপুর পুলিশ ফাঁড়ী। বরিশাল জেলায় মোট পুলিশ জনবল ১৫১০।

বাংলার কীর্তিমান পুরুষদের জন্মস্থান হিসেবে বরিশাল জেলার সুনাম রয়েছে। কিছু কীর্তিমান ও বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বের মধ্যে রয়েছেন শেরে-ই-বাংলা এ.কে ফজলুল হক, কবি জীবনানন্দ দাস, বেগম সুফিয়া কামাল, শহীদ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর।

বরিশাল জেলায় দর্শনীয় স্থান গুলোর মধ্যে গুটিয়া মসজিদ (উজিরপুর), শাপলার বিল (উজিরপুর), মাহিলাড়া মঠ (গৌরনদী), বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপেন মহিউদ্দিন জাদুঘর (বাবুগঞ্জ), কলসকাঠি জমিদার বাড়ি (বাকেরগঞ্জ),  দুর্গাসাগর (বাবুগঞ্জ), ভাসমান বাজার (উজিরপুর), চাখার শের-ই-বাংলা স্মৃতি জাদুঘর (বানারীপাড়া), কবি বিজয় গুপ্তের মনসা মন্দির (আগৈলঝাড়া), জমিদার মুন্সি বাড়ি (আগৈলঝাড়া), উলানিয়া জমিদার বাড়ি এবং চরহোগলা জমিদার বাড়ি অন্যতম।

বরিশাল জেলা পুলিশ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।

 
Copyright © 2022 RANGE DIG OFFICE, BARISHAL. Developed by Momtaj Trading(Pvt.) Ltd.